বর্ধমান স্টেশন থেকে গড়ালো প্যাসেঞ্জার রেলের চাকা

 বর্ধমান স্টেশন থেকে গড়ালো প্যাসেঞ্জার রেলের চাকা

০২/১2/২০২০ প্রতিনিধি:-আমজাদ আলী

পূর্ব বর্ধমান:- দীর্ঘ আট মাস পর ট্রেনের চাকা গড়ালো বর্ধমান রামপুরহাট লুপলাইনে।বুধবার সকাল সাড়ে ছ'টায় বর্ধমান স্টেশন থেকে বর্ধমান তিনপাহাড় প্যাসেঞ্জার ট্রেন রওনা দিল।
 কোভিড বিধি মেনেই ট্রেন চালু হল লুপলাইনে।আপাতত  লোকাল ও প্যাসেঞ্জার মিলিয়ে মোট চারটি ট্রেন আপ ডাউন করবে এই রেলপথে। 
পাশাপাশি এদিনই চালু হল বর্ধমান আসানসোল লোকাল ট্রেন। স্বাভাবিক ভাবেই যাত্রীদের মধ্যে খুশী হওয়া।
মেল এক্সপ্রেস ট্রেন বাদ দিয়ে বর্ধমান রামপুরহাট রেল পথে লোকাল ও প্যাসেঞ্জার মিলিয়ে মোট ১০ জোড়া ট্রেন চলে।কিন্তু এই কোভিড আবহের চারটি লোকাল ট্রেন চালু করে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরতে চাইছে রেল কর্তৃপক্ষ।বর্ধমান থেকে রামপুরহাট ১২৬ কিলোমিটার রেলপথের  মাঝে মোট ১৭ টি স্টেশন পড়ে।বীরভূম ও বর্ধমান উত্তর অংশের লাইফ লাইন এই রেলপথ। তাছাড়া উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম বর্ধমান রামপুরহাট রেল পথ।এর সঙ্গে বিহার ও ঝাড়খণ্ডের যোগাযোগের ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। 
সুতরাং এতদিন টানা ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে স্থানীয় মানুষজনকে।গত ১৪ নভেম্বর থেকে বর্ধমান হাওড়া মেইন ও কর্ড শাখায় এবং বর্ধমান কাটোয়া রেলপথে লোকাল ট্রেন চালু হয়।ফলে ধীরে ধীরে গোটা রাজ্যেই রেল পরিষেবা প্রায় স্বাভাবিক হচ্ছে। স্বাভাবিক হচ্ছে মানুষের জীবন যাত্রা ও গণ পরিবহন ব্যবস্থা।
বর্ধমান আসানসোল রেলপথেও চালু হল প্যাসেঞ্জার ও লোকাল ট্রেন। যাত্রীদের দাবী বেশী সংখ্যায় লোকাল ট্রেন চালানো হোক।নিত্যযাত্রীরা বলেন লোকাল ট্রেন চালু হল ভালো কথা।কিন্তু ট্রেনে ভিড় এড়ানো বা কোভিড বিধি মানার জন্য বেশী সংখ্যায় ট্রেন চালু করতে হবে।
ভোর থেকেই বর্ধমান স্টেশনে চরম ব্যস্ততা ধরা পড়লো।জিআরপি প্লাটফর্মে  বারে বারে মাইকিং করছে কোভিড বিধি মানার জন্য।ট্রেনের মধ্যে   দূরত্ব বজায় রাখার জন্য সিটে ক্রশ চিহ্ন দেওয়া হয়েছে।
কার্যতঃ এখন দেখার কতটা করোনা বিধিনিষেধ মেনে চলবে আপামর রাজ্যবাসী,প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

Reactions

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ